মুক্তিযুদ্ধে হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের স্মরণে নারীপক্ষর শ্রদ্ধাঞ্জলি
আলোর স্মরণে কাটুক আঁধার- ২০১৮


২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫/ ৮ ডিসেম্বর ২০১৮ সন্ধ্যা ৫.১৫ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মুক্তিযুদ্ধে হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের স্মরণে নারীপক্ষর বিশেষ স্মরণ অনুষ্ঠান আলোর স্মরণে কাটুক আঁধার। ১৯৮৮ সাল থেকে প্রতি বছর ডিসেম্বর মাসে বিজয় দিবসের প্রাক্কালে মুক্তিযুদ্ধে হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের স্মরণে বিভিন্ন প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করে নারীপক্ষ নিয়মিতভাবে আলোর স্মরণে কাটুক আঁধার অনুষ্ঠানটি উদ্যাপন করে আসছে। এবারের প্রতিপাদ্য মানবিকরাষ্ট্র চাই।
কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মুক্তিযুদ্ধে হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের স্মরণ করে মোমবাতি জ্বালিয়ে বাংলাদেশকে আমরা একটি মানবিক রাষ্ট্র হিসাবে প্রতিষ্ঠার দাবী জানাই।
এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আগুনের পরশমনি ছোঁয়াও প্রাণে গানের সাথে সাথে মুক্তিযুদ্ধে হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের স্মরণে উপস্থিত সকলে একটি করে আলোর শিখা জ্বালিয়ে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। অনুষ্ঠানে ঘোষণাপত্র পাঠ করেন নারীপক্ষর সদস্য রেহানা সামদানী। গান পরিবেশন করেন সুরতীর্থ ও জাহিদ মামুন। কবিতা আবৃত্তি করেন হুর-এ জান্নাত ও ইকবাল আহমেদ। স্মৃতিচারণ করেন বীরাঙ্গনা আনোয়ারা বেগম, মুক্তিযোদ্ধা এটিএম ফজলুর রহমান ও মুক্তিযোদ্ধা কাজী নুরুল করিম দিলু।
বীরাঙ্গনা আনোয়ারা জানান, একজন সংবেদনশীল ব্যাক্তি তাকে বিয়ে করেছেন কিন্তু তিনি সন্তান ধারন করতে পারেননি। তিনি মনে করেন, তার উপর যে যৌন অত্যাচার হয়েছে সেকারণেই তিনি সন্তান ধারণ ক্ষমতা হারিয়েছেন। মুক্তিযোদ্ধা কাজী নুরুল করিম দিলু বলেন, মানবিক রাষ্ট্রের চেতনা নিয়েই তারা মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। কিন্তু তিনি দুখে:র সঙ্গে জানান যে. আজ ৪৭ বছর পর আবারও আমরা মানবিক রাষ্টের জন্য দাবি তুলছি কারণ আমাদের সেই মানবিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা হয়নি। তিনি নতুন প্রজন্মের কাছে আহ্বান জানান, তোমরাই এই মানবিক রাষ্ট্র ছিনিয়ে আনবে। নারীপক্ষর সদস্য কামরুন নাহার এর ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হয়।