প্রাণের মানুষ আছে প্রাণে

২৪ এপ্রিল ২০১৭ নাসরীন হক-এর ১১ তম মৃত্যু বার্ষিকী


১১ বৈশাখ ১৪২৪/২৪ এপ্রিল ২০১৭ সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে নারীপক্ষর নাসরীন হক সভাকক্ষে নারী আন্দোলন ও মানবাধিকার কর্মী নাসরীন হক-এর ১১ তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে প্রাণের মানুষ আছে প্রাণে শীর্ষক অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে সূচনা বক্তব্য রাখেন নারীপক্ষর আন্দোলন সম্পাদক রীনা রায়। রবীন্দ্র সঙ্গীত প্রণের মানুষ আছে প্রাণে ও মাঝে মাঝে তব দেখা পাই পরিবেশন করেন মাকছুরা আখতার অন্তরা এবং আপন কাজে অচল হলে চলবেনা ও ভাল আছি ভাল থেক আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখো গান দুটি পরিবেশন করেন জান্নাত-এ-ফেরদৌসী লাকী। ফাহমিদা ওহাব ঝিনুক এর লেখা পাঠ করে শুনান নারীপক্ষর সদস্য সাদাফ-সায-সিদ্দিকী। নাসরীন হক এর কর্ম জীবন, ব্যক্তিগত সম্পর্কে স্মৃতিচারণ করেন শহীদুল আলম, মাহবুবা মাহমুদ লীনা এবং সরদার আরিফ উদ্দিন।

নাসরীন হক, কান্ট্রি ডিরেক্টর, এ্যাকশনএইড এবং সদস্য নারীপক্ষ, গত ২৪ এপ্রিল ২০০৬ আনুমানিক সকাল ৯: ৪০ মিনিটে নিজ বাড়ীর গাড়ী পার্কে অফিস হতে নিতে আসা এ্যাকশনএইড -এর গাড়ী দ্বারা গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে মারা যান।

নাসরীন হক একটি আন্দোলনের নাম, যাঁর কন্ঠ সর্বদা স্বোচ্চার ছিলো শোষণ, নির্যাতন ও বৈষম্যের শিকার মানুষের পক্ষে। নারীর প্রতি সহিংসতা রোধে নাসরীন হক ছিলেন সদা সচেষ্ট। প্রসূতিমৃত্যু রোধে তাঁর পদক্ষেপ ছিলো অত্যন্ত বলিষ্ঠ। নারীর প্রজননস্বাস্থ্য অধিকার নিয়ে তাঁর নিরলস প্রচেষ্টার সুফল পাচ্ছেন বাংলাদেশের অসংখ্য নারী। এসিড আক্রমণের শিকার নারীর মুখ নাসরীন হকই প্রথম জন-সম্মুখে নিয়ে এসেছিলেন।